দুধ মা হালিমার ঘরে – ইসলামিক কবিতা – শায়েখ আব্দুল্লাহ আল মুনির

দুধ মা হালিমার ঘরে – ইসলামিক কবিতা – শায়েখ আব্দুল্লাহ আল মুনির – শায়েখের সমস্ত কালেকশন পেতে আমাদের ইসলামিক বাংলা ওয়েবসাইটে নজর রাখুন

মক্কার দেশে সেই সময়

সাদ গোত্রের কাফেলা যায়।

তারা সবাই টাকা পেলে

পালন করে পরের ছেলে।

এদিক সেদিক ঘুরে ফিরে

ধনীর ছেলে তালাশ করে।

রসুল ছিলেন এতীম ছেলে

তাই সবাই যায় ফেলে।

মা হালিমা স্বামীকে বলেন,

ধনীর ছেলে নাই বা পেলেন।

মুহাম্মাদকে নিয়ে যায়

দেখাই যাক কি হয়।

যখন থেকে তাকে নিলেন

আশার আলো দেখতে পেলেন।

আল্লাহ পাকের রহমত এলো

সব কিছুতে বরকত হলো।

স্তন তার শূন্য ছিলো।

দূধের ভারে পূর্ণ হলো।

জীর্ণ উষ্ট্রী সবল হলো,

অনেক বেশি দুধ দিলো।

নিজের চোখে এসব দেখে

স্বামী বলেন হালিমাকে।

রবের কসম হালিমা শোনো

এই ছেলে মহান জেনো।

রসুল যখন ছোট্ট অতি

কায়েম করেন ন্যায় নীতি

দুধ মায়ের কোলে বসে

দুধ খেতেন হিসাব কষে।

একটি স্তন মুখে নিতেন

দ্বিতীয়টি রেখে দিতেন।

মা হালিমার নিজের ছেলে

দুধ ভাই খাবে বলে।

কয়েক বছর এক নাগাড়ে

রসুল ছিলেন তাদের ঘরে।

তারপর এক ঘটনা ঘটে

রসুল তখন খেলার মাঠে।

হঠাৎ করে জীবরীল এসে

শোয়ান তাকে একটি পাশে।

তারপর তার বক্ষ চিড়ে

পাপ ধুয়ে ছাপ করে।

মা হালিমা ঘটনা শুনে

ভয় পেলেন আপন মনে।

যার ছেলে তার কোলে

ত্বরা করে দিলেন তুলে।

শায়েখের ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন

দুধ মা হালিমার ঘরে

Leave a Reply

Your email address will not be published.