মহান তুমি – ইসলামিক কবিতা – শায়েখ আব্দুল্লাহ আল মুনীর

মহান তুমি – ইসলামিক কবিতা – শায়েখ আব্দুল্লাহ আল মুনীর এর শহিদী মৃত্যু প্রত্যাশা করে অসাধারন একটি ইসলামিক কবিতা পড়ুন এবং শেয়ার করুন

মহান তুমি শ্রেষ্ঠ অতি

ভোগ-বিলাশে নেইকো প্রীতি

এই দুনিয়ার মায়ার জালে

জড়াওনিকো দ্বীনকে ভুলে।

বাতিল লোকের জুলুম দেখে

ভয় পাওনি একটু বুকে।

কভু তাদের সামনে গিয়ে

মাথাটাকে দাওনি নুয়ে।

তাদের নিকট দুহাত তুলে

অনুকম্পা চাওনি ভুলে।

উল্টো তুমি তাদের সাথে

জিহাদ করো অস্ত্র হাতে।

তুমি সিংহ পুরুষ মহান বীর

মারলে কত জালিম কাফির

কাফিররা সব পাগলপারা

তোমার ভয়েই দিশেহারা।

ঘোষণা দিলো তোমার নামে

কিনবে মাথা সোনার দামে।

কিন্তু রবের হুকুম ছাড়া

কাউকে কভু যায় না মারা।

তাইতো কত বছর গেলো

চেষ্টা তাদের ব্যার্থ হলো।

আজকে ছিল রবের লিখন

তাইতো এলো তোমার মরণ।

ভাগ্য তোমার কতই ভাল

রবের রাহে মরণ হলো।

জীহাদ করে শহীদ হলে

নতুন জীবন ফিরে পেলে।

সিংহটা আজ খাচা ছেড়ে

ফিরে গেলো আপন ঘরে।

চারপাশে সে চোখ বুলিয়ে

খুশির মাঝে যায় মিলিয়ে।

আজকে হুরের বাসর হলো

বরকে বধু কাছে পেলো।

তাবুর মাঝে দুজন তারা

পান করলো মধুর সুরা।

সুন্দরী হুর আপন মনে

সূর তুলল প্রেমের গানে

এসো এসো হে প্রিয়তম

এই ভুবনে সুস্বাগতম।

আমরা তোমার বধু সবাই

বিনোদনে কাটবে সময়।

শয়ন করে সোনার খাটে

ভীষণ সুখে সময় কাটে

সুন্দরী সব মেয়ের ভিড়ে

এপাশ ওপাশ ঘোরে ফেরে।

প্রেমের আবেগ নিয়ে বুকে

বেহুশ হয়ে ঘুরতে থাকে।

কি আর ছিল তার বাসনা

এসব ছাড়া আর কিছু না।

তাই তো বলি তারই তরে

কেউ কেদো না দুঃখ করে।

যে সফরের নৌকা ভেড়ে

কল্পলোকের স্বপ্নপুরে।

সেই সফরে কেউ কি কাঁদে

অবুঝ মনের মানুষ বাদে?

যেই ব্যক্তি জিহাদ করে

শহিদ হলো রবের তরে।

দুঃখ পাওয়ার নেইকো কারণ।

নতুন জীবন পাবে সেজন

যে জন ভোগের লোভে পড়ে

জিহাদ থেকে থাকলো দূরে

এই দুনিয়ার মায়ার পিছে

বেহুশ হয়ে ছুটলো মিছে।

এমনিভাবেই গেলো মরে

কাঁদলে কাঁদো তাদের তরে।

একটি কথা স্মরণ রেখো

সোনার পাতায় যত্নে লিখো।

শাহাদতের সুউঁচ্চ মান

নবীর সাথেই তাদের থান।

প্রভু হে মনটা আমার

সেই কামনায় হয় বে-কারার

আমার দোয়া মেনে নিও

শাহাদতের মৃত্যু দিও।

Leave a Reply

Your email address will not be published.