মা খাদেজার সাথে বিবাহ – কবিতায় নবীর কথা – শায়েখ আব্দুল্লাহ আল মুনির

মা খাদেজার সাথে বিবাহ – শায়েখ আব্দুল্লাহ আল মুনীর এর কবিতায় নবীর কথা গ্রন্থের খন্ডিত অংশ

মা খাদেজা সব শুনে

পণ করেন দৃঢ় মনে।

তার সাথে করবে বিয়ে

ঘর হবে তাকে নিয়ে।

সব কিছু খুলে বলে

নাফিসাকে যেতে বলে

তিনি তার বান্ধবী

মেনে নেন তার দাবী।

নবীর কাছে বলেন গিয়ে

খাদিজাকে করেন বিয়ে।

নবী তার কথা শুনে

চাচাদের মত জেনে।

বিয়েতে রাজি হোন

ফেলা হয় দিন ক্ষন

ঠিক হয় মহরানা।

বকনা উট কুড়ি খানা

মা খাদিজা ভাগ্যবতী

নবী হলেন তার পতি।

বয়স তখন পচিশ তার

মা খাদেজা চল্লিশ পার।

পচিশ বছর এক নাগাড়ে

ছিলেন তারা সুখের ঘরে।

এর মাঝে নবী তার

বাধেননিকো অন্য ঘর।

মা খাদেজার মৃত্যুর পর

অনেক হয় সংসার তার।

খাদেজা ছাড়া সবাই তারা

নবীর ঘরে সন্তান হারা।

কেবল একটি দাসীর পেটে

ইব্রাহীমের জন্ম ঘটে।

মারিয়া কিবতী তার নাম

বাঁচেনিকো সেই সন্তান।

খাদিজার গর্ভে নবী পান

প্রাণ প্রিয় সাত সন্তান।

প্রথম ছেলে কাসিম নাম

সেই নামে তার ডাকনাম।

আবুল কাসিম বলে সবে

কাসিমের পিতা অর্থ হবে।

এরপর আসে চার বোন

যয়নব, রোকেয়া দুই জন

উম্মে কুলছুম, মা ফাতেমা।

এই হলো চার জনা।

তায়েব তাহের দুই ছেলে

সাত হলো সবে মিলে।

তায়েবের ভিন্ন নাম ছিল

আব্দুল্লাহ নামটি হলো।

তিনটি ছেলে ছোট কালে

চলে যায় পরকালে।

মেয়েগুলো বেঁচে ছিলো।

বড় হয়ে বিয়ে হলো।

ওহী যখন নাযিল হয়।

তারা সবে মুসলিম হয়।

ফাতেমা ছাড়া সবাই তারা

নবীর আগেই ছাড়ে ধারা।

নবীর মৃত্যুর ছ’মাস পরে

মা ফাতিমা দুনিয়া ছাড়ে।

আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন….

মা খাদেজার সাথে বিবাহ

মা খাদেজার সাথে বিবাহ- কবিতায় নবীর কথা – শায়েখ আব্দুল্লাহ আল মুনির। শায়েখের অন্যন্য লেকচার ও গ্রন্থের জন্য আমাদের সাইটে নজর রাখুন এবং একই সাথে শায়েখ আব্দুল্লাহ আল মুনির এর অন্যান্য লেকচার পেতে আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে ভিজিট করতে পারেন। আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে শায়েখের অধিকাংশ লেকচার পাবেন এবং আমরা শায়েখের অমূল্য বানীগুলো শুনতে আমাদের ইউটিউব পেজে এবং একই সাথে ফেসবুজ পেজে লাইক দিয়ে একটিভ থাকুন। ধন্যবাদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.