মায়ের মৃত্যু এবং দাদার তত্ত্বাবাধায়নে – ইসলামিক কবিতা – শায়েখ আব্দুল্লাহ আল মুনির

মায়ের মৃত্যু এবং দাদার তত্ত্বাবাধায়নে ইসলামিক কবিতা শায়েখ আব্দুল্লাহ আল মুনির এর কবিতায় নবীর কথা কবিতার অংশ বিশেষ

এই ঘটনার কদিন পরে

রসুল তখন ছয় বছরে।

মা আমেনা তাকে নিয়ে

সফর করেন বিদেশ ভূয়ে।

ইচ্ছা ছিল এই বছর

দেখতে যাই স্বামীর কবর

সাথে ছিলেন দাদাজান।

আর উম্মে আয়মান।

মা আমেনার দাসী তিনি

মহান নবীর দুধ জননী।

সফর থেকে ফিরার পথে

মৃত্যু এসে ধরলো তাকে।

রসুল হলেন মা হারা

শূন্য হলো তার ধারা।

পিতার মতোন দাদা তখন

করেন তার ভরন পোষন।

বাপ-মা হারা এতীম ছেলে

ভেবে তার মনটা গলে।

ভালবেসে কাছে ডেকে

মানুষ করেন বুকে রেখে।

কা’বার ঘরের পাশে যখন

পাতা হতো দাদার আসন।

বসতো নাকে কেউ সেথা

তিনি ছিলেন তাদের নেতা।

শিশু নবীর অবুঝ হৃদয়।

বসে পড়তেন সেই বিছানায়।

চাচার সব সর সর রব

দাদা বলেন চুপ করো সব।

এই ছেলে যখন খেলে দেখে আমার মনটা গলে।

শায়েখ আব্দুল্লাহ আল মুনির এর ফেসবুক পেজ ভিজিট করতে এখানে ক্লিক করুন

মায়ের মৃত্যু এবং দাদার তত্ত্বাবাধায়নে কবিতাটি নেয়া হয়েছে কবিতায় নবীর কথা কবিতা থেকে

Leave a Reply

Your email address will not be published.