কুফরী কথা উচ্চারণ করাও কুফরী – শায়েখ আব্দুল্লাহ আল মুনির

কুফরী কথা উচ্চারণ করাও কুফরী – অন্তরে কুফরীর প্রতি বিশ্বাস না রেখে কেবল মুখে কুফরী কথা উচ্চারণ করাও কুফরী শায়েখ আব্দুল্লাহ আল মুনিরের গবেষণা মূলক প্রবন্ধটি আপনার বন্ধুদের নিকট শেয়ার করুন

ইমাম নাব্বী রঃ বলেন, কোনো ব্যক্তি কুফরী কথা বলার মাধ্যমেই কাফির হবে সে আকীদা রাখুক বা তামাশার ছলে বলুক। (রওদাতুত্ তালেবীন)

ইমাম ইবনে তাইমিয়া রঃ বলেন, কোনো ব্যক্তি যদি দুনিয়াবী স্বার্থে অন্তরের আক্বীদা ছাড়াই কুফরী কথা মুখে বলে তবে সে আমাদের নিকট এবং আল্লাহর নিকট কাফির বলে সাব্যস্ত হবে। (মাজমুআ এ ফাতাওয়া)

বাহরুর রায়েক এ বলা হয়েছে, তামাশা বা খেলার ছলে যদি কেউ কুফরী কথা বলে তবে সমস্ত আলেমদের নিকটই তা কুফরী বলে গণ্য হবে তার আকীদা কি তা দেখা হবে না।  (বাহরুর রায়েক)

মুল্লা আলী কারী রঃ বলেন, হাবীল ফাতাওয়াতে আছে, যদি কেউ মুখে কুফরী কথা বলে আর তার অন্তরে পরিপূর্ণ ঈমান থাকে তবু সে কাফির। আল্লাহর নিকটও সে মুমিন নয়। (শারহে ফিকহে আকবার পৃঃ২৪৫)

তিনি আরও বলেন, জেনে নাও, যদি কেউ কোনো কুফরী কথা বলে যার অর্থ তার জানা আছে তবে সে ঐ আকীদা রাখে না যদি কাফিররা তাকে বাধ্য না করে বরং সে স্বেচ্ছায় উক্ত কথা মুখে উচ্চারন করে তবে তাকে কাফির বলা হবে। (শারহে ফিকহে আকবার পৃঃ২৪৪)

প্রবন্ধটি পড়া শেষ হলে আপনার বন্ধুদের নিকট পড়া শেষ হলে আপনার বন্ধুদের নিকট শেয়ার করুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.