আবেগ সৃষ্টির উদ্দেশ্য – #শায়েখ আব্দুল্লাহ আল মুনির#

আবেগ সৃষ্টির উদ্দেশ্য লেকচার প্রদান করেন #শায়েখ আব্দুল্লাহ আল মুনির# এবং লেকচারটি লিপিবদ্ধ করেন “মুহাম্মদ”

একজন মানুষের মনে প্রথম যে প্রশ্নটি উদয় হওয় উচিত সেটা হচ্ছে, “আমাদেরকে আল্লাহ কেন সৃষ্টি করেছেন?” কারন যখন কোনো জিনিস কোনো উদ্দেশ্যে সৃষ্টি করা হয় আর তা সে না করে তাহলে তা সেটার ব্যর্থতা। সে কলম নামের একটা কলঙ্ক। তো আমাদের যদি ব্যর্থতা থেকে বেচেঁ সফলকাম হতে হয় তাহলে আমাদের জানতে হবে যে আমাদের সৃষ্টির উদ্দেশ্যটা কি?

আমরা একটা বিষয় উপলব্ধি করতে পারি যে আমাদেরকে আল্লাহর কোনো প্রয়োজন নেই। অন্যান্য বিভিন্ন ধর্মীয় মতবাদ বা দর্শনে আছে যে স্রষ্টা বিভিন্ন সৃষ্টি করে তাদেরকে দায়িত্বে ভাগ করে দিয়ে স্বয়ং নিজে সাহায্য নিচ্ছেন। এটা আসলে স্রষ্টা সম্পর্কে খুবই বিভ্রান্তিকর ধারণা।

আল্লাহ আমাদেরকে জানিয়েছেন যে তিনি নিজেই টিকে আছেন। তিনি কারও মুখাপেক্ষী নন। যদি সমস্ত সৃষ্টিও কুফরি করে তাতেও তাঁর রাজত্বে কোনো কিছু বৃদ্ধি হবে না। তো এই যদি অবস্থা হয় তাহলে প্রশ্ন হচ্ছে আমাদের সৃষ্টি কেন করা হল?

অনেকে মনে করে আমাদের কে সৃষ্টি করা হয়েছে দুর্বলকে সাহায্য করার জন্য, গরীবকে খাওয়ানোর জন্য ইত্যাদি। প্রশ্ন হলো এগুলো তো আল্লাহ নিজেই করতে পারেন। তাঁর তো কারও সাহায্য প্রয়োজন হয় না। তারপরেও যদি ধরে নেওয়াও হয় এটাই সৃষ্টির উদ্দেশ্য তাহলেও আমরা ব্যর্থ যেহেতু আমরা সমস্ত অনাহারীকে খাওয়াতে পারছি না। তাহলে আমাদের আসলে এ জন্য সৃষ্টি করা হয় নি। এটা একটা বহ্যিক বিষয় মাত্র। যেভাবে কলম দিয়ে কান চুলকানো গেলেও তা কিন্তু সেটা সৃষ্টির উদ্দেশ্য নয়। কলম তৈরির উদ্দেশ্য হচ্ছে লেখা।

আমাদেরকে সৃষ্টির ব্যাপারেও আল্লাহ বলেছেন যে তাঁর ইবাদতের জন্যই আমাদেরকে সৃষ্টি করা হয়েছে (যারিয়াত ৫৬)। আমাদের দিয়ে মানুষের যে উপকারের বিষয়টা আছে তা একটা সাইডের ব্যাপার। েএকজন মানুষ কালেমা পড়ে মুসলমান হয়ে মৃত্যুবরণ করল। তার দ্বারা কোনো মানুষের এক পয়সার উপকারও হলো না। কিন্তু তবুও সে সফলকাম হয়ে গেল। কারন তার সৃষ্টির উদ্দেশ্য সে আল্লাহর কাছে আত্নসমর্পণের মাধ্যমেই পূর্ণ করেছে। আর একজন অমুসলিম যেমন মাদার তেরেসা সকল মানুষের উপকার করল কিন্তু সে আল্লাহকে চিনে তার কাছে আত্মসমর্পণ করতে পারল না তবে সে ব্যর্থ হয়ে গেল। কারন তার কাজটি ঐ কলমের মত যেটা দিয়ে শুধু কান চুলকে বেড়ানো হয়েছে; লেখা হয়নি। কাজটা একটা কিছু আমি অস্বীকার করছি না তবে নিঃসন্দেহে তা মূল ব্যাপার নয়।

আবেগ সৃষ্টির উদ্দেশ্য সম্পূর্ণ প্রবন্ধটি পিডিএফ ডাউনলোড করতে নিচের ডাউনলোড বাটনে ক্লিক করুন…….

আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিতে এখানে ক্লিক করুন……

আমাদের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করতে এখানে ক্লিক করুন……

Leave a Reply

Your email address will not be published.